বিস্তারিত

নওগাঁর মহাদেবপুর সর্বমঙ্গলার মেধাবী ছাএ দূর্জয় মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ

আপডেট টাইম : 2 weeks ago
নওগাঁর মহাদেবপুর সর্বমঙ্গলার মেধাবী ছাএ দূর্জয় মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ

 

মোঃ রফিকুল ইসলাম, নওগাঁঃ মহাদেবপুর সর্বমঙ্গলা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের দূর্জয় অতি সাধারণ একটি পরিবারের সন্তান হয়েও কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে।

 

নওগাঁ জেলার  মহাদেবপুর উপজেলার সদর ইউনিয়নের মহাদেবপুর কায়েস্হ পাড়া গ্রামের স্কুল শিক্ষক সুকুমার দাশের প্রথম সন্তান সুকান্ত কুমার দাশ দূর্জয়।

 

দ্বিতীয় সন্তান সুস্মিতা দাস মিষ্টি (৮ম শ্রেণি) স্ত্রী শীলা রানি দাশ একজন গৃহিণী। দূর্জয় মাগুড়া মেডিকেলের জন্য নির্বাচিত হয়েছে।

 

দূর্জয় বিডি প্রভাত প্রতিনিধিকে জানায়, বাবা এখন অবসরে থাকায় কোন রকম বেতন ভাতা পান না, তাই স্বাভাবিক কারনেই বাবাকে  অনেক কষ্ট করেই সংসার চালাতে হচ্ছে।
তা ছাড়াও ছোট বোনের পড়াশুনাতেও অনেক খরচ হয়। 

 

সব কিছু মিলিয়ে ক্ষুদ্র সংসারে বাবা মা তাঁদের নিজেদের চাহিদাকে গুরুত্ব না দিয়ে সব সময় আমাদেরকে নিয়েই চিন্তা ভাবন করেন, বাবা আমাকে নিয়ে স্বপ্ন দেখতেন, যেন আমি ইঞ্জিনিয়ার বা ডাক্তার  হতে পারি।

 

বাবার ইচ্ছা পূরুণ করার জন্য আমি সব সময় লিখা পড়া নিয়েই ব্যস্ত থাকতাম। আমার অন্যান্য স্কুল বা কলেজ বন্ধুদের মত আমি ভোগ বিলাসী জীবন যাপন করতাম না।

 

দূর্জয় মহাদেবপুর সর্বমঙ্গলা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় থেকে জেএসসি এবং এসএসসি উভয় পরীক্ষায় জিপিএ ৫ প্রাপ্ত হয়েছে , এবং নওগাঁ সরকারি কলেজ থেকে এইচএসসি পরীক্ষাতেও জিপিএ ৫ পেয়েছে।

 

এবং চলতি বছরে (২০২১ইং) মাগুড়া মেডিকেলের জন্য নির্বাচিত হয়েছে।

 

দূর্জয় বিডি প্রভাত প্রতিনিধিকে আরো জানায়, আমি আপনাদের মাধ্যমে দেশবাসীর নিকট দোয়া প্রার্থী, আমি যেন কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌছতে পারি এবং আত্নীয় স্বজনসহ অসহায় গরীব দুঃখী মানুষের ও দেশবাসীর  সুচিকিৎসা সেবা দিতে পারি।

 

দূর্জয়ের বাবা সুকুমার দাস  বিডি প্রভাতকে জানান, আমার বড় ছেলে ছোট থেকেই খুব শান্ত ও সাদাসিধে জীবন যাপন করত, বিলাসিতা বা চাওয়া পাওয়ার জন্য কোন রকম  আবদার বা যেদ করত না।

 

ছোট থেকেই  সে খুব মেধাবী ছিল। সৃষ্টিকর্তার কৃপায় মেডিকেলের জন্য নির্বাচিত হওয়াই  আমি দেশবাসীর নিকট দোয়া ও আশীর্বাদ কামনা করি, যেন আমার ছেলে ডাক্তার হয়ে নিজ এলাকার ও দেশবাসীর সেবা করতে পারে।

 

মহাদেবপুর সর্বমঙ্গলা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ মোশাররফ হোসেন বলেন, সুকান্ত কুমার দাস দূর্জয়  তার আচার আচরণ, নম্রতা ও ভদ্রতার জন্য সকল শিক্ষক তাকে অত্যন্ত স্নেহের চোখে দেখত। সে সহজ সরল ও খুব মেধাবী ছাএ ছিল। 

 

শিক্ষকদের খুব শ্রদ্ধা  করত। এবং ইংরেজীতে খুব পারদর্শী ছিল। আমি তার সর্বাঙ্গীণ মঙ্গল ও দীর্ঘায়ু  কামনা করছি।

 

এ দিকে দূর্জয়ের নিজ এলাকায় গ্রামের বাড়িতে মেডিকেলের ভর্তির খবর ছড়িয়ে পরলে  প্রতিবেশি সবার মাঝে এক অন্য রকম আনন্দের  আমেজ বিরাজ করছে।

 

পাড়া প্রতিবেশিদের একটাই প্রত্যাশা অনেক বড় ড়াক্তার হয়ে দূর্জয় যেন আমাদের সুচিকিৎসা দেয়।

 

বিডি প্রভাত/সহন

নিউজটি শেয়ার করুন

খবর সম্পর্কিত ট্যাগ..

BD Provat বিডি প্রভাত নওগাঁ
মন্তব্য দিন
We'll never share your email with anyone else.