বিস্তারিত

গর্ভপাত করে নেহাকে মেরে ফেলতে চেয়েছিলেন তার মা-বাবা

আপডেট টাইম : 1 week ago
গর্ভপাত করে নেহাকে মেরে ফেলতে চেয়েছিলেন তার মা-বাবা

বিনোদন ডেস্কঃ ৩৩-এ পা রাখলেন নেহা কক্কর। সামাজিক মাধ্যমে ভক্তদের শুভেচ্ছা বার্তার বানভাসি। বিয়ের পর প্রথম জন্মদিন গায়িকার। স্বামী রোহনপ্রীত সিংহও আলাদা করে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন স্ত্রীকে।

 

বলিউড বলছে, এত আনন্দের মধ্যেও তার জন্মবৃত্তান্ত আজও কষ্ট দেয় নেহাকে। কেন? এমনই এক জন্মদিনে বোনের প্রকৃত জীবনকথা সামনে এনেছিলেন দাদা টনি কক্কর। জানিয়েছিলেন, কক্কর পরিবারের অবাঞ্ছিত সন্তান নেহা! গর্ভপাত করে নেহাকে মেরে ফেলতে চেয়েছিলেন তাদের মা-বাবা।

 

কেন নেহাকে জন্ম দিতে চাননি কক্কর দম্পতি? টনির মতে, আমরা প্রচণ্ড গরিব ছিলাম। সংসারের আর্থিক অবস্থা ক্রমশ খারাপ হচ্ছিল। তত দিনে আমি আর সোনু জন্মেছি। মা তাই আর সন্তান চাননি। কিন্তু অজান্তেই নেহাকে গর্ভে ধারণ করে ফেলেছেন।

 

নেহার দাদার দাবি, জানার পরেই তিনি গর্ভপাত করাতে চান। কিন্তু তত দিনে গর্ভস্থ সন্তানের বয়স ৮ মাস পেরিয়ে গেছে। অবশেষে এক গ্রীষ্মের বিকেলে জন্ম নেন নেহা।

 

প্রচণ্ড অভাবের মধ্যে বড় হয়েছেন নেহা-সোনু-টনি। ছোটবেলায় বিভিন্ন অনুষ্ঠানে ভজন গেয়ে সংসার চালিয়েছেন সোনু-নেহা। বরাবরই নেহার পথপ্রদর্শক সোনু। তিনিই বোনকে গানবাজনায় হাতেখড়ি দিয়েছিলেন।

 

পরে গানের রিয়েলিটি শো ‘ইন্ডিয়ান আইডল’-এ অংশ নেওয়ার পরেই ভাগ্য বদলে যায় নেহার। জনপ্রিয় গায়িকার জীবনের এই অধ্যায় প্রথম প্রকাশ্যে আসে ২০১৭ সালে ইউটিউবে।

 

বিডি প্রভাত/আরএইচ

নিউজটি শেয়ার করুন

খবর সম্পর্কিত ট্যাগ..

বিডি প্রভাত
মন্তব্য দিন
We'll never share your email with anyone else.

শিরোনাম