বিস্তারিত

এক নজরে জাতীয় বাজেট ২০২১-২২

আপডেট টাইম : 2 weeks ago
এক নজরে জাতীয় বাজেট ২০২১-২২

বিডি প্রভাত প্রতিবেদক: জাতীয় সংসদে ২০২১-২২ অর্থবছরের জন্য ৬ লাখ ৩ হাজার ৬৮১ কোটি টাকার বাজেট উপস্থাপন করেছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

 

বৃহস্পতিবার (৩ জুন) বিকেল তিনি বাজেট উপস্থাপন শুরু করেন। ‘জীবন-জীবিকায় প্রাধান্য দিয়ে সুদৃঢ় আগামীর পথে বাংলাদেশ’ শিরোনামে এ বাজেট পেশ করছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। দীর্ঘ পথ পরিক্রমায় বাংলাদেশের ৫০তম বাজেট এটি।

 

আরে পড়ুন: ২০২১-২২ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট মন্ত্রিসভায় অনুমোদন

 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকারের টানা তৃতীয় মেয়াদের তৃতীয় বাজেট এটি। অর্থমন্ত্রী হিসেবে আ হ ম মুস্তফা কামালের এটি তৃতীয় বাজেট।

 

বাজেটে যা যা প্রস্তাব হয়েছে.......

 

‘জীবন-জীবিকায় প্রাধান্য দিয়ে সুদৃঢ় আগামীর পথে বাংলাদেশ’ শিরোনামে অর্থমন্ত্রী সংসদে ৬ লাখ ৩ হাজার ৬৮১ কোটি টাকার বাজেট প্রস্তাব করেন।

 

আরে পড়ুন: করোনায় আরও ৩০ জনের মৃত্যু

 

প্রস্তাবিত বাজেটে করমুক্ত আয়সীমা আগের মতোই তিন লাখ টাকা রাখা হয়েছে। তবে নারী ও ৬৫ বছর বা তদূর্ধ্ব বয়সের করদাতার সঙ্গে তৃতীয় লিঙ্গের করদাতাদের জন্যও করমুক্ত আয়সীমা সাড়ে তিন লাখ টাকা করা হয়েছে।

 

মেড ইন বাংলাদেশ’ ব্যান্ড প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে ২০২১-২২ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে দেশে উৎপাদিত পণ্যে ১০ বছর কর ছাড় দেওয়ার প্রস্তাব করেছেন অর্থমন্ত্রী।

 

এ লক্ষ্যে বাংলাদেশে অটোমোবাইল-থ্রি হুইলার এবং ফোর হুইলার উৎপাদনকারী কোম্পানিকে শর্ত সাপেক্ষে ১০ বছর মেয়াদে কর অব্যাহতি এবং আরও কিছু শর্ত সাপেক্ষে আরও ১০ বছর কর অব্যাহতি প্রদানের প্রস্তাব করেছে।

 

আরো পড়ুন: ভাসানচর যেতে সরকারের অনুমতি লাগবে

 

২০২১-২২ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে রাজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৩ লাখ ৮৯ হাজার কোটি টাকা। এর মধ্যে করের মাধ্যমে মোট আদায়ের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৩ লাখ ৪৬ হাজার কোটি টাকা।

 

যেখানে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৩ লাখ ৩০ হাজার কোটি টাকা এবং এনবিআর বহির্ভূত কর হচ্ছে ১৬ হাজার কোটি টাকা। এছাড়া কর ছাড়া প্রাপ্তি ধরা হয়েছে ৪৩ হাজার কোটি টাকা। বৈদেশিক অনুদান থেকে সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা রাখা হয়েছে ৩ হাজার ৪৯০ কোটি টাকা।

 

প্রস্তাবিত বাজেটে মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মানী ভাতা বাড়ানো হয়েছে। আগে মুক্তিযোদ্ধাদের মাসিক ভাতা ছিল ১২ হাজার টাকা। ২০২১-২২ অর্থবছরে মাসিক ভাতা ১২ হাজার টাকা থেকে ২০ হাজার টাকায় উন্নীত করা হচ্ছে। এতে বরাদ্দ বাড়বে ১ হাজার ৯২০ কোটি টাকা।

 

আরো পড়ুন: বাংলাদেশে ১১ দেশ থেকে যাত্রী প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা

 

২০২১-২০২২ অর্থবছরের বাজেটে পরিবহন ও যোগাযোগ খাতকেই বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে সরকার। প্রস্তাবিত বাজেটে এ খাতে সর্বোচ্চ বরাদ্দ দেওয়া হচ্ছে ৬১ হাজার ৬৩১ কোটি ৪১ লাখ টাকা। দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাত। এতে ৪৫ হাজার ৮৬৭ কোটি ৮৪ লাখ টাকা বরাদ্দ প্রস্তাব করা হয়েছে।

 

চলমান মহামারি করোনা ভাইরাস মোকাবিলা ও বিভিন্ন দেশ থেকে ভ্যাকসিন কেনা বাবদ এই অর্থ বছরে ১০ হাজার কোটি টাকা বাজেট পেশ করেছেন তিনি। এছাড়াও বাজেটে স্বাস্থ্য খাতে বরাদ্দ দেয়া হচ্ছে ৩২ হাজার ৭৩১ কোটি টাকা। এটি মোট বাজেটের ৭ দশমিক ৪ শতাংশ।

 

চলতি ২০২০-২১ অর্থবছরের বাজেটে স্বাস্থ্য খাতে ২৯ হাজার ২৪৭ কোটি টাকার বরাদ্দ রয়েছে। স্বাস্থ্য খাতের বিনিয়োগ বাড়াতে আগামী বাজেটে নতুন করে কর অবকাশ সুবিধা দেয়া হচ্ছে।

 

আরো পড়ুন: ছয় মাসের কম মেয়াদ থাকলে পাসপোর্ট নবায়ন করার নির্দেশ

 

বাড়ির নকশা অনুমোদন করতে এখন থেকে কর শনাক্তকরণ নম্বর বা টিআইএন বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। এর মাধ্যমে শহরে বা গ্রামে যেখানেই আপনি বাড়ি করতে যান আপনার টিআইএন নিতে হবে। এতে বাড়ির মালিক করজালের আওতায় আসবে।

 

এছাড়া যেকোনো সমবায় সমিতির রেজিস্ট্রেশন বা নিবন্ধনের ক্ষেত্রেও টিআইএন বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল আগামী ২০২১-২২ অর্থবছরের জন্য প্রস্তাবিত বাজেটে এ বিধান আরোপ করেছেন।

 

কোনো প্রতিষ্ঠান তৃতীয় লিঙ্গের কর্মী নিয়োগ দিলে কর ছাড় পাবে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। দেশের প্রান্তিক ও সুবিধাবঞ্চিত মানুষকে সামাজিক এবং অর্থনীতির মূলধারায় আনতে সরকারের যে চেষ্টা, তা ফলপ্রসূ করতেই এই পদক্ষেপ বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী।

 

আরো পড়ুন: বঙ্গবন্ধুর ৪ খুনির মুক্তিযুদ্ধের খেতাব বাতিলের সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত

 

২০২১-২২ অর্থবছরের বাজেট প্রস্তাবে তিনি বলেছেন, যদি কোনো প্রতিষ্ঠান তার মোট কর্মচারীর ১০ শতাংশ বা ১০০ জনের অধিক তৃতীয় লিঙ্গের ব্যক্তিদের নিয়োগ দেয়, তবে ওই কর্মচারীদের পরিশোধিত বেতনের ৭৫ শতাংশ বা প্রদেয় করের ৫ শতাংশ, যেটি কম, তা নিয়োগকারীকে কর রেয়াত হিসেবে প্রদানের জন্য প্রয়োজনীয় বিধান সংযোজনের প্রস্তাব করছি।

 

প্রস্তাবিত ২১-২২ বাজেটে উন্নয়নমূলক খাতে সর্বোচ্চ বরাদ্দ পাচ্ছে ‘রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র’। নির্মাণাধীন এ বিদ্যুৎকেন্দ্র ২০২১-২২ অর্থবছরে বরাদ্দ পাচ্ছে ১৮ হাজার ৪২৬ কোটি টাকা। এছাড়া দেশের মেগা প্রজেক্টগুলোরও বরাদ্দ বৃদ্ধি পাচ্ছে।

 

২০২১-২২ অর্থবছরে মাধ্যমিক পর্যায়ে ৩৯ কোটি ২৫ লাখ শিক্ষার্থীকে, উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে ৭ কোটি ৫০ লাখ শিক্ষার্থী, স্নাতক পর্যায়ের ১ কোটি ৫০ লাখ শিক্ষার্থীকে মোট ২ হাজার ১০৯ কোটি ৭৮ লাখ টাকা উপবৃত্তি প্রদান করা হবে।

 

আরো পড়ুন: দুধ-বিস্কুট অন্তর্ভুক্ত করে অবশেষে প্রকল্পে খিচুড়ি রান্না বাতিল

 

২০২১-২২ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে আইন ও বিচার বিভাগের জন্য বরাদ্দ রাখা হয়েছে এক হাজার ৮১৫ কোটি টাকা। এরমধ্যে সুপ্রিম কোর্টের জন্য ২২৫ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে।

 

ভ্যাট ফাঁকি, ব্যর্থতা বা অনিয়মের ক্ষেত্রে আরোপিত জরিমানার পরিমাণ দ্বিগুণের পরিবর্তে সমপরিমাণ করার প্রস্তাব করেছেন অর্থমন্ত্রী। সেই সঙ্গে বকেয়া ভ্যাটের ওপর মাসিক সুদের হার ২ শতাংশের পরিবর্তে তিনি ১ শতাংশ করার প্রস্তাব করেছেন। এক্ষেত্রে বার্ষিক সুদের হার ২৪ শতাংশের পরিবর্তে ১২ শতাংশ নির্ধারিত হবে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী।

 

অপ্রদর্শিত আয় রিটার্নে প্রদর্শনের সুযোগের আওতায় ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ৯ হাজার ৬২৩ জন করদাতা অপ্রদর্শিত সম্পদ রিটার্নি প্রদর্শনপূর্বক ১ হাজার ৩৮৬ কোটি ১০ লাখ ২ হাজার ৭৯৫ টাকা আয়কর প্রদান করেছেন। যার ফলে করোনাকালীন সময়ে দেশের অর্থনীতিতে পুঁজি প্রবাহ বৃদ্ধি পেয়েছে।

 

আরো পড়ুন: জলমগ্ন ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে সীমাহীন ভোগান্তি

 

এভারের বাজেটে যে সব পণ্যের দাম বাড়বে.....

 

গুড়ো দুধ, বাদাম, সব ধরণের মাংস, মাশরুম, খনিজ লবন, বিদেশি বিস্কুট, চুইংগাম, বিদেশী গাজর- টমটোসহ সব বিদেশী ফল।

 

বিড়ি, সিগেরেট, জর্দা, তামাক, লুব্রিকেটিং ওয়েল, খনিজ তেল, গাড়ি, মোবাইল ফোন, বিমানের কাচ, লঞ্চের কেবিন ভাড়া, সাবান, থিম পার্কের রাইড, টাইলস, স্যানিটারিওয়্যার ও বিদেশি রড ও সমজাতীয় পণ্য।

 

আরো পড়ুন: মহাখালীতে উদ্ধারকৃত খণ্ডিত লাশের ঘটনার রহস্য উদঘাটন

 

এভারের যেসব পণ্যের দাম কমবে.....

 

দাম কমবে দেশীয় ফ্রিজ, গাড়ির যন্ত্রাংশ। এছাড়া ব্লেন্ডার, জুসার, মিক্সার, গ্রাইন্ডার, ইলেক্ট্রিক কেটলি, রাইস কুকার, মাল্টি কুকার, প্রেসার কুকারের স্থানীয় উৎপাদন পর্যায়ে ভ্যাট অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। এতে এসব পণ্যের দাম কমতে পারে।

 

ওয়াশিং মেশিন, মাইক্রোওয়েভ ওভেন ও ইলেক্ট্রিক ওভেনের উৎপাদন পর্যায়ের ভ্যাট অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। ফলে এসব পণ্যের দামও কমতে পারে।

 

আরো পড়ুন: আগুন ধরিয়ে দিয়ে চিকিৎসক হত্যা, ঘটনা ধামাচাপার চেষ্টা

 

বাজেটের ঘাটতি মেটানো হবে যেভাবে.......

 

নতুন বাজেটে মোট ব্যয়ের আকার ৬ লাখ ৩ হাজার ৬৮১ কোটি টাকা। এটি মোট জিডিপির ১৭ দশমিক ৪৭ শতাংশ। অর্থমন্ত্রীর পেশ করা এই বাজেটে ঘাটতির পরিমাণ (অনুদানসহ) ২ লাখ ১১ হাজার ১৯১ কোটি টাকা এবং অনুদান ছাড়া ঘাটতি হচ্ছে ২ লাখ ১৪ হাজার ৬৮১ কোটি টাকা।

 

অনুদানসহ ঘাটতির পরিমাণ জিডিপির ৬ দশমিক এক শতাংশ। আগামী বাজেটে ঘাটতি পূরণে অভ্যন্তরীণ খাত থেকে ঋণ নেওয়া হবে এক লাখ ১৩ হাজার ৪৫৩ কোটি টাকা এবং বৈদেশিক খাত থেকে নেওয়া হবে ৯৭ হাজার ৭৩৮ কোটি টাকা।

 

অভ্যন্তরীণ খাতের মধ্যে ব্যাংকিং খাত থেকে ঋণের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৭৬ হাজার ৪৫২ কোটি টাকা, সঞ্চয়পত্র থেকে ৩২ হাজার কোটি টাকা এবং অন্যান্য খাত থেকে নেওয়া হবে ৫ হাজার এক কোটি টাকা।

 

আরো পড়ুন: লুটপাট বন্ধ না হলে বাজেটের কাঙ্খিত ফল পাওয়া যাবে না : বাংলাদেশ ন্যাপ

 

পাশাপাশি ঋণ করার কারণে এর বিপরীতে সুদ পরিশোধ করতে হবে। এ জন্য আগামী অর্থবছরে সুদ খাতে বরাদ্দ রাখা হয়েছে ৬৭ হাজার ৫৮৯ কোটি টাকা।

 

বিডি প্রভাত/জেইচ

নিউজটি শেয়ার করুন

মন্তব্য দিন
We'll never share your email with anyone else.

শিরোনাম