সমুদ্রে নিম্নচাপ ও জোয়ারের পানিতে পিরোজপুরে শতাধিক গ্রাম প্লাবিত

সমুদ্রে নিম্নচাপ ও জোয়ারের পানিতে পিরোজপুরে শতাধিক গ্রাম প্লাবিত

পিরোজপুর জেলা প্রতিনিধিঃ পিরোজপুরের পাচঁ উপজেলায় সমুদ্রের নিম্নচাপ ও জোয়ারের পানিতে শতাধিক গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। ঢুকে পরেছে লবণাক্ত পানি ও কচুরিপানা, ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে ফসলি জমি। তলিয়ে গেছে রাস্তা-ঘাট, বাড়ির আঙিনা। এতে বিপাকে পড়েছেন এসব এলাকার খেটে-খাওয়া সাধারণ মানুষ।

জেলার ভান্ডারিয়া, মঠবাড়িয়া, ইন্দুরকানী, নাজিরপুর ও সদরের বেশ কিছু এলাকার বেড়িবাঁধ সিডরের সময় ভেঙে যাওয়ায় এখনও মেরামত করা হয়নি। ফলে সামান্য জোয়ারের পানিতে এসব এলাকার শত শত হেক্টর ফসলি জমি তলিয়ে গেছে। বেড়িবাঁধের অভাবে সদরের শারিকতলা ইউনিয়নের কয়েক হাজার পরিবার মানবেতর জীবন-যাপন করছেন।

ভুক্তভোগীরা জানান, অধিকাংশ জায়গায় বেড়িবাঁধ নেই। বেড়িবাঁধ না থাকায় পানির চাপে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। বসতবাড়ি, রান্নাঘর পানিতে ডুবে গেছে। ফলে না খেয়ে দিন পার করতে হচ্ছে। জেলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের দেওয়া তথ্য মতে, পিরোজপুরের সাত উপজেলায় ২৯২কিলোমিটার বেড়িবাঁধ রয়েছে। সমুদ্রের নিম্নচাপ ও অতি জোয়ারের পাানিতে পিরোজপুরের নদ-নদীর পানির উচ্চতা স্বাভাবিকের চেয়ে দুই থেকে তিন ফুট বেড়েছে।

জানাগেছে, কচা নদীর তীরে পিরোজপুর সদর উপজেলার ৬ নং শারিকতলা ডুমরিতলা ইউনিয়ন পরিষদ। ১০ কিলোমিটার বেড়িবাঁধের ৬ কিলোমিটার নেই। এ কারণে একটু পানি বাড়লেই মানুষের ঘরে পানি উঠে।

বিডি প্রভাত/আরএইচ