মোংলা বন্দরে কর্মরত শ্রমিকদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

মোংলা বন্দরে কর্মরত শ্রমিকদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

মোংলা প্রতিনিধি: করোনাকালীন সময়ে মানবিক সহায়তার অংশ হিসেবে তৃতীয় বারের মত মোংলা বন্দরে জাহাজে কর্মরত দুই হাজার ৯৫০ জন অস্থায়ী শ্রমিক ও কর্মচারীদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।

মোংলা বন্দর শ্রমিক কর্মচারী সংঘের সভাপতি বাবু কালিপদ গুপ্তের সভাপতিত্বে ও সাধারন সম্পাদক মো. ওমর ফারুক সেন্টুর পরিচালনায় বৃহস্পতিবার (১৫ জুলাই) দুপুরে শ্রমিক সংঘ চত্বরে খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক ও মোংলা বন্দর বার্থ ও শিপ অপারেটর এ্যাসোয়িশনের সাধারন সম্পাদক আবুল খায়ের আব্দুল্লাহ খোকন সেরনিয়াবাতের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় মোংলা বন্দরে কর্মরত দুই হাজার ৯৫০ জন শ্রমিক কর্মচারীদের মাঝে ১০ কেজি চাল,২ কেজি মশুর ডাল,১ লিটার তেল,৩ কেজি আলু, ১ কেজি চিনি,১ কেজি লবন,৫০০ গ্রাম সেমাই ও ১০০ গ্রাম প্যাকেট দুধ বিতরণ করা হয়।

No description available.

মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ,বাংলাদেশ শিপিং এজেন্ট এ্যাসোসিয়েশন ও মোংলা বন্দর বার্থ ও শিপ অপারেটর এ্যাসোসিয়েশন আয়োজনে এবং মোংলা বন্দর শ্রমিক কর্মচারী সংঘের (সিবিএ) এর সহযোগিতায় খাদ্য সামগ্রী বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন করেন বন্দরের চেয়ারম্যান রিয়ার এডমিরাল মোহাম্মদ মুসা।এসময় উপস্থিত ছিলেন বন্দর কর্তৃপক্ষের পরিচালক (প্রশাসন) মো. শাহিনুর আলম,পরিচালক (ট্রাফিক) মো. মোস্তফা কামাল,প্রধান অর্থ হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা মো. সিদ্দিকুর রহমান,প্রধান নিরাপত্তা কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট কমান্ডার নুর মোহাম্মদ, বন্দরের কন্টিনজেন্ট কমান্ডার লেফটেন্যান্ট কমান্ডার রাব্বানী,উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কমলেশ মজুমদার,মোংলা বন্দর বার্থ ও শিপ অপারেটর এ্যাসোসিয়েশনের উপদেষ্টা এস এম মোস্তাক মিঠু,আলহাজ্ব শেখ আব্দুস সালাম,আলহাজ্ব মো. এইচ এম দুলাল,মশউর রহমান,মিজানুর রহমান টিংকু,বন্দর ব্যবহারকারী এম. এ বাতেন,মোস্তফা জেসান ভুট্রো,মো. মহাসিন,মো. আফসার উদ্দিন রতন,মাহবুবুর রহমান টুটুল,মো. আলমগীর হোসেন প্রমূখ।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে বন্দরের চেয়ারম্যান রিয়ার এডমিরাল মোহাম্মদ মুসা বলেন,শ্রমিকরাই হলো বন্দরের প্রাণ।শ্রমিক শ্রেণীকে বাদ দিয়ে যেমন একটি বন্দর কল্পনা করা যায়না তেমনি শ্রমিকদের সহায়তা ছাড়া বন্দর চলেও না।সুতরাং সবার আগে শ্রমিকদের স্বার্থকে অগ্রাধিকার দিয়েই আমাদের সামনে এগুতে হবে।করোনাকালীন সময়ে শ্রমিকদের জন্য আগামীতেও মানবিক সহায়তা অব্যাহত থাকবে।

বিডি প্রভাত/আরএইচ