বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে নারীকর্মীকে ধর্ষন, গার্মেন্টস মালিক প্রেফতার

বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে নারীকর্মীকে ধর্ষন, গার্মেন্টস মালিক প্রেফতার

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ সাভারে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে নারীকর্মীর সাথে শারীরিক সম্পর্কের অভিযোগে মো. কাইয়ুম (৪২) নামে এক গার্মেন্টস মালিককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শুক্রবার (৫ ফেব্রুয়ারি) রাতে ওই নারীকর্মীর অভিযোগের ভিত্তিতে সাভার থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। পরে আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

গ্রেফতার মো. কাইয়ুম বগুড়া জেলার সারিয়াকান্দি থানার পার দেবুডাঙ্গা গ্রামের মৃত দৌলত জামান সরকারের ছেলে। তিনি সাভার পৌর এলাকার ছায়াবিথী মহল্লার বাংলার মার্ট এ্যাপারেলস এন্ড প্রিন্টিং কারখানার অংশীদারী মালিক।

পুলিশ ও অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত দুই মাস ধরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ওই কারখানার এক নারী শ্রমিকের (১৭) সাথে শারীরিক সম্পর্ক করে আসছিলেন অংশীদারী মালিক মো. কাইয়ুম। একপর্যায়ে ওই নারী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে তাকে বিয়ে করার জন্য চাপ দিতে থাকেন। কিন্তু মালিক তার কথায় কান না দিয়ে বিভিন্নভাবে গড়িমসি শুরু করে। বাধ্য হয়ে শুক্রবার (৫ ফেব্রুয়ারি) রাতে বিষয়টি জানিয়ে সাভার মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন ভুক্তভোগী ওই নারী। এ ঘটনায় রাতেই অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত কাইয়ুমকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সাভার মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. তাহমুদুল ইসলাম বলেন, একজন নারী শ্রমিকের লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে গার্মেন্টস মালিক কাইয়ুমকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের শারীরিক সম্পর্কের কথা স্বীকার করায় শনিবার (৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে দায়ের করা ধর্ষণ মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। অন্তঃসত্ত্বা নারী শ্রমিককে উদ্ধার করে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে পাঠানো হয়েছে।

বিডি প্রভাত/আরএইচ