বশেমুরবিপ্রবির ভেটেরিনারি বিভাগ ও এগ্রোভেট বায়ো সলিউশন এর অনলাইন প্রতিযোগিতা

বশেমুরবিপ্রবির 'ভেটেরিনারি বিভাগ' ও 'এগ্রোভেট বায়ো সলিউশন' এর অনলাইন প্রতিযোগিতা

জয়নাল আবেদীন জিহান, বশেমুরবিপ্রবিঃ আসন্ন পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বশেমুরবিপ্রবি) এর ‘প্রাণীসম্পদ বিজ্ঞান ও ভেটেরিনারি মেডিসিন বিভাগ’ এবং ‘এগ্রোভেট বায়ো সলিউশন’ এর উদ্যোগে আগামী ১৭-১৯ জুলাই এক অনলাইন প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে। আয়োজনটি ১৭ জুলাই সকাল ১০ টা থেকে ১৯ জুলাই রাত ১২টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে।

যেখানে প্রতিযোগীরা কোরবানির ফটোগ্রাফি, স্মরণীয় কোরবানি-স্মৃতিচারণমূলক গল্প ও একুশ শতকের ডিজিটাল কৃষি সেবা- স্বপ্ন ও চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার কৌশল এই তিনটি ক্যাটাগরিতে অংশ নিতে পারবেন।
প্রতিটি বিভাগ থেকে উত্তীর্ণ প্রথম স্থান অর্জনকারী প্রতিযোগী পাবেন নগদ ১০০০ টাকা ও সনদপত্র এবং ক্রমান্বয়ে ২য়, ৩য় এবং ৪র্থ স্থান অর্জনকারী পাবেন নগদ ৫০০ টাকা এবং সনদপত্র। অর্থাৎ প্রতিযোগিতায় অবস্থান অনুসারে ৩ টি বিভাগ থেকে মোট পুরস্কার পাবে ১২ জন প্রতিযোগী। প্রতিযোগিতার প্রথম ২ টি বিষয়ে (কোরবানির হাট ও কোরবানির জন্য প্রস্তুতকৃত প্রাণীর ফটোগ্রাফি কনটেস্ট এবং কোরবানির পশু নিয়ে স্মৃতিচারণমূলক গল্প) সকলের জন্য উন্মুক্ত। তৃতীয় বিষয়ে (একুশ শতকের ডিজিটাল কৃষি সেবা- স্বপ্ন ও চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার কৌশল) শুধুমাত্র কৃষি, ভেটেরিনারি এবং মৎস্য বিষয়ে অধ্যয়নরত এবং উক্ত তিন বিষয়ের সাবেক যেকোন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করতে পারবে।

মোবাইল ফটোগ্রাফি কনটেস্টের ক্ষেত্রে অবশ্যই মোবাইলে ধারণকৃত সাম্প্রতিক ছবি হতে হবে। ছবির কপিরাইট কারও দ্বারা প্রমাণিত হলে কন্টেস্টের জন্য অবিবেচিত বলে গণ্য হবে। কোরবানির হাট থেকে ধারণ করা ছবি কিংবা কোরবানির জন্য প্রস্তুুতকৃত প্রিয় প্রাণীর ছবি ধারণ করতে হবে। একজন প্রতিযোগী একটির বেশি ছবি পোস্ট করতে পারবে না।
স্মরণীয় কোরবানি নিয়ে স্মৃতিচারণ মূলক গল্পটি কমপক্ষে ৪০০-৫০০ শব্দের ভেতর অথবা তার বেশি শব্দে এবং একুশ শতকের ডিজিটাল কৃষি সেবা- স্বপ্ন ও চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার কৌশল নিয়ে কলামটি কমপক্ষে ৪০০-৫০০ শব্দ বা তার বেশি হতে হবে।

প্রতিযোগীদের এগ্রোভেট বায়ো সলিউশনের ফেসবুক গ্রুপে (https://www.facebook.com/groups/553206848981532/?ref=share), online_contest_BSMRSTU_veterinary_Department হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে পোস্ট করতে হবে। সর্বমোট ১০০ নাম্বারের ভিতরে পোস্টের রিয়েক্ট, কমেন্ট ও শেয়ারের সংখ্যার উপর ভিত্তি করে ৪৫ (১৫×৩) নাম্বার এবং অভিজ্ঞ বিচারক প্যানেলের মূল্যায়ন এর ভিত্তিতে ৫৫ নাম্বার থাকবে।

ফলাফল ঘোষণা হবে ঈদুল আযহার দিন উৎসবমুখর রাতে। তবে রাতে কোন সময় হবে তা এগ্রোভেট বায়ো সলিউশন এর অফিসিয়াল পেইজ থেকে জানিয়ে দেওয়া হবে।

এই অনলাইন প্রতিযোগিতা সম্পর্কে বশেমুরবিপ্রবির  “প্রাণীসম্পদ বিজ্ঞান ও ভেটেরিনারি মেডিসিন বিভাগের শিক্ষার্থী তোফায়েল আহমেদ বলেন, “বিভাগের শিক্ষার্থীরা সূচনালগ্ন থেকে নিজ নিজ কর্মদক্ষতা, মেধা-মনন ও পরিশ্রমের চমৎকার সংমিশ্রণ ঘটিয়ে সততার সহিত পড়াশোনার পাশাপাশি বিভিন্ন সামাজিক, মানবিক ও জনসাধারণের জন্য কল্যাণকর বিষয়ে কাজ করে আসছি। এরই ধারাবাহিকতায় করোনাকালীন এই স্থবির সময়ে সকলকে একটু ভালো লাগার অনুভূতি দিতে, নিজের শখের ব্যাপ্তি ঘটাতে এবং কোরবানি ইদ নিয়ে মনে লেপ্টে থাকা স্মৃতির পুনর্জাগরণ ঘটাতে আমাদের বিভাগের সকলে মিলে আয়োজন করছি এগ্রোভেট বায়ো সলিউশন নিবেদিত একটি ‘অনলাইন প্রতিযোগিতা’র। সকলের সহযোগিতা থাকবে আমাদের ছোট্ট এই বিভাগের জন্য এবং সবার অংশগ্রহণ নিশ্চিত হবে বলে আশা ব্যক্ত করছি৷ সুস্থ সবল ও মেধাবী জাতি গঠনে আমাদের বিভাগের সকল আপকামিং ভেটেরিনারিয়ান অঙ্গীকারবদ্ধ।”

এগ্রোভেট বায়ো সলিউশন এর চিফ ট্যাকনিকেল এডভাইজর ডাক্তার নূরে আলম বলেন, “এগ্রোভেট বায়ো সলিউশন কনসালটেন্সি ও মাল্টিমিডিয়া ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান। এর মূল লক্ষ্য খামারীদের বিশেষজ্ঞ মুখী করে তোলা। প্রতিষ্ঠানটি সারাদেশের কৃষি, ভেটেরিনারি এবং মৎস্য খামারিদের বিনামূল্যে ব্যবস্থাপত্র ও পরামর্শ দিয়ে থাকে। এছাড়া আমাদের ফেসবুক পেজ ও গ্রুপে কৃষি, ভেটেরিনারি এবং মৎস্য বিষয়ক সর্বশেষ আপডেট গুলো দিয়ে ও বিভিন্ন ডুকুমেন্টারী তৈরির মাধ্যমে তথ্য প্রদান করে জনগণকে পরামর্শ ও সচেতন করা হয়।

বিডি প্রভাত/আরএইচ