পূজায় শাড়ি না দেওয়ায় স্বামীর সাথে অভিমানে গৃহবধূর আত্মহত্যা

পূজায় শাড়ি না দেওয়ায় স্বামীর সাথে অভিমানে গৃহবধূর আত্মহত্যা

আব্দুর রাজ্জাক বাপ্পী, ঠাকুরগাঁও: ঠাকুরগাঁওয়ে পূজায় শাড়ি না দেওয়ায় স্বামীর সাথে অভিমান করে শোয়ার রুমের সরের সঙ্গে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে দিথি রাণী (১৮) নামে এক গৃহবধূ।

রবিবার রাতে ওই গৃহবধূকে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুরে রেফাট করেন। রংপুর যাওয়ার পথে মৃত্যুবরণ করেন। নিহত দিথি রাণী ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার আউলিয়াপুর ইউনিয়নের কচুবাড়ী নাপিতপাড়া গ্রামের ভমর রায়ের স্ত্রী।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, গত মাস দুই আগে নিজের বড় বোনের দেবরের সাথে ভালবেসে দিথি রাণী বিয়ে হয় স্বামী ভমর রায় রাজ মিস্ত্রির কাজ করেন। রবিবার ভূল্লী বাজারে স্বামীর কাছে দামি শাড়ি কিনে চাইলে স্বামী না দেওয়ায় বাসায় গিয়ে তাদের মধ্যে বাকবিতন্ডা হয়। অভিমানে রাতে সে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁস দেয়।

তার স্বামী ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পেয়ে তাকে উদ্ধার করে রাতে হাসপাতালে নিয়ে যান। পরে রংপুর যাওয়ার পথে মৃত্যুবরণ করেন। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন, আউলিয়াপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আতিকুর ইসলাম।

বিডি প্রভাত/জেইচ

Spread the love