পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় পৌর নির্বাচনে প্রচার প্রচারনায় চলছে ত্রিমুখী লড়াই

পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় পৌর নির্বাচনে প্রচার প্রচারনায় চলছে ত্রিমুখী লড়াই

মু.হেলাল আহম্মেদ (রিপন), পটুয়াখালী: এবারের নির্বাচনে উদ্বেগ উৎকন্ঠায় ত্রিমুখী লড়াইয়ে চলছে পটুয়াখালী জেলার কলাপাড়া পৌরসভার নর্বাচনী প্রচার-প্রচারনা।  আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারী অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে পটুয়াখালীর কলাপাড়া পৌরসভার নির্বাচন।

এদিকে প্রতীক বরাদ্দের দিন থেকে প্রার্থীরা নির্বাচনী মাঠ চষে বেড়াচ্ছে সর্বত্র। ব্যানার, ফেস্টুন, স্টিকার ছড়িয়ে উঠোন বৈঠক করে যাচ্ছে সমান তালে এবং যোগ দিচ্ছে বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে এবং লিফলেট বিতরনের মাধ্যমে ভোটারদের মন জয় করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন সকল প্রর্থীরা।

নিবার্চন যতটাই ঘনিয়ে আসছে ততটাই বাড়ছে উদ্বেগ ও উৎকন্ঠা। বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থককে কুপিয়ে জখম করা পোষ্টার ছেড়া এবং উঠানবৈঠকে ইট পাটকেল নিক্ষেপ প্রচার-প্রচরনায় বাধা সত্ত্বেও চলছে পৌর নির্বাচনের প্রচারনা কার্যক্রম।

এই নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীক নিয়ে প্রতিদন্ধিতা করছেন বর্তমান মেয়র ও পৌর আওয়ামি লীগের সভাপতি বিপুল চন্দ্র হাওলাদার। অন্যদিকে জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে প্রতিদন্ধিতা করছেন কলাপাড়া উপজেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক ও সাবেক মেয়র হাজী হুমায়ন সিকদার। সতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে জগ প্রতীক নিয়ে প্রতিধন্ধিতা করছেন কলাপাড়া পৌর আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক (সদ্য বহিষ্কৃত নেতা) আলহাজ্ব দিদারুদ্দিন আহমেদ মাছুম বেপরী এবং বাংলাদেশ ইসলামী আন্দোলন থেকে চরমোনাই পীর মনোনীত প্রার্থী মোঃ সেলিম মিয়া হাত পাখা প্রতীক নিয়ে মেয়র পদে প্রতিদন্ধিতা করছেন।

তবে ত্রিমুখী লড়াই হবে আওয়ামি লীগ, বিএনপি, এবং সতন্ত্র প্রার্রথীর মধ্যে। আওয়ামি লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী থাকায় নির্বাচনে হাড্ডা হাড্ডি লড়াইয়ের সম্ভাবনা রয়েছে। তবে  পৌরবাসী এদের মধ্যে থেকে যোগ্য প্রার্থী বেছে নেবেন বলে সুশীল সমাজ মত পোষন করেছেন। এদিকে কলাপাড়া পৌরসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রত্যেক প্রার্থী বিভিন্ন ধরনের প্রতিশ্রুতি দিয়ে যাচ্ছেন। পৌরসভার উন্নয়ন ও পৌরবাসীদের জীবন যাত্রার মান উন্নয়নের জন্য যোগ্য প্রার্থীকে বাছাই করবে বলে অভিমত প্রকাশ করেন।

কলাপাড়া পৌর নির্বাচনের জগ প্রতীকের সতন্ত্র প্রার্থী দিদার উদ্দিন আহম্মেদ মাসুম জানান, আমার জনপ্রিয়তায় ঈষান্র্বিত হয়ে নৌকা মাকার্র প্রতিদন্ধি প্রার্থী হিসেবে আমাকে নির্বাচন থেকে সরে যাবার জন্য বিভিন্নভাবে চাপ প্রয়োগ করছেন এবং তার সমর্থকরা বিভিন্ন ধরনের অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছেন আমি সাধারন মানুষের সঙ্গে মাঠে আছি সুষ্ঠ নির্বাচন হলে জনগণ আমাকেই বিজয় করবে এমনটাই আশা ব্যক্ত তার।

উল্লেখ্য,বিদ্রোহী প্রার্থীর অভিযোগের ব্যাপারে জানতে চাইলে আওয়ামি লীগের সমর্থিত প্রার্থী বিপুল হালদার গণমাধ্যমকে বলেন, নৌকা উন্নয়ন ও শান্তির প্রতীক উন্নয়নের লক্ষ্যে সাধারন মানুষ নৌকায় ভোট দিবে কোন ধরনের অপৃতিকার সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে আমি বা আমার কোন সমর্থক জড়িত নয়। কলাপাড়া পৌর নির্বাচনে শহরে নতুন নতুন লোকজনের আনাগোনা এবং কিশোর গ্যাং উপস্থিতি লক্ষ করা যাচ্ছে। এতে সাধারন ভোটাররা উদ্বিগ্ন। 

এব্যপারে কলাপাড়া থানার অফিসার্স ইনচার্জ খন্দকার মুস্তাফিজুর রহমান জানান, অবাধ শান্তিপূর্ন পরিবেশে পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে পৌর এলাকায় পুলিশি তৎপরাতা বাড়ানো হয়েছে। নির্বাচন পরিপন্থি কর্মকান্ডের সাথে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না, সে যেই দলের হোক না কেন বলে জানান তিনি। 

এদিকে পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদন্ধিতা করছেন ৪ জন এবং কাউন্সিলর পদে প্রতিদন্ধিতা করছেন সর্বমোট ৪৯ জন প্রার্থী। নির্বাচন অফিসের তথ্যমতে কলাপাড়া পৌরসভায়  মোট ভোটার সংখ্যা ১২,৮৯১ জন।

বিডি প্রভাত/জেইচ