নরসিংদীতে তিন বছরেও চালু করা যায়নি বিএডিসির গভীর নলকূপ   

নরসিংদীতে তিন বছরেও চালু করা যায়নি বিএডিসির গভীর নলকূপ   

বিশ্বনাথ পাল, নরসিংদী প্রতিনিধি: নরসিংদী রায়পুরা উপজেলায় দীর্ঘ তিন বছরেও চালু করা হয়নি বিএডিসির গভীর নলকূপ ৷

নরসিংদী জেলার রায়পুরা উপজেলার আমিরগঞ্জ ইউনিয়নে বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশনের আওতাধীন দক্ষিণ মির্জানগর পশ্চিম পাড়া (বিএডিসির) স্কীমটি দীর্ঘ তিন বছরেরও চালু করতে পারেনি প্রকল্প পরিচালক।

খোজ নিয়ে জানাযায় ২০১৭ সালে স্কীমটি চালু করার কথা থাকলেও নানান অজুহাতে এটি বন্ধ রাখা হয়েছে, সরকারী নিয়ম মোতাবেক বিএডিসির নিকটবর্তী এলাকায় কোন সেলু মেশিন স্থাপন করা যায় না তথাপি নিয়ম নীতিকে তোয়াক্কা না করে ঐ এলাকায় সেলু মেশিন স্থাপন করেছেন ইউনিয়ন বিএনপির সহসভাপতি কামরুজ্জামান।

দক্ষিণ মির্জানগর পশ্চিম পাড়া স্কীম ম্যানেজার ফরহাদ খান অভিযোগ করে বলেন, বিএডিসির এই স্কীমটি প্রতিবছর চালু করার কথা থাকলে ও  নানান অজুহাতে এটি বন্ধ রাখা হয়েছে অথচ এই প্রকল্প চালু করার জন্য আজ তিন বছর যাবত পল্লি বিদ্যুৎ এর বিল পরিশোধ করে যাচ্ছি , এখানে প্রায় দশ লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করে আজ আমি দিশেহারা স্কীমটি চালুর সময় হলেই শুধু টালবাহানা এর আসল রহস্য খুঁজে পাচ্ছি না, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করার পর একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা কে দিয়ে এর শেষ কোথায় তা তদন্ত কমিটি বলতে পারবে অথচ এই  স্কিমটি চালুটি হলে কৃষকরা স্বপ্ল মূল্যে পানি পাবে।

এই বিষয়ে সেলুর মালিক কামরুজ্জামান কে সাংবাদিকরা প্রশ্ন করেন সরকারী স্কীমের পাশে আপনার সেলু মেশিন কি করে চালান তিনি বলেন, সেটি বিএডিসি জানেন।

বিএডিসির উপ পরিচালক সঞ্জয় সাহা বলেন, ফরহাদ খানের পক্ষে কৃষক নেই তাই স্কীম চালু হতে দেরী হচ্ছে তাহলে প্রশ্ন হচ্ছে স্কীম চালু হলো না কৃষক নাই জানলাম কেমনে ? এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সুদৃষ্টি কামনা করেন এলাকাবাসী

বিডি প্রভাত/আরএইচ

Spread the love