ডাকাতির প্রস্তুতিকালে আন্ত:জেলা ডাকাত দলের ৯ সদস্য গ্রেপ্তার

ডাকাতির প্রস্তুতিকালে আন্ত:জেলা ডাকাত দলের ৯ সদস্য গ্রেপ্তার

বিশ্বনাথ পাল,নরসিংদী: নরসিংদীতে স্বর্নের দোকানে ডাকাতির প্রস্তুতিকালে আন্ত:জেলা ডাকাত দলের ৯ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি)। এসময় তাদের কাছথেকে থেকে ২টি বিদেশি পিস্তল, নগদ টাকা, প্রাইভেটকার ও অন্যান্য দেশিয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে।

শনিবার দুপুরে নরসিংদীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) ইনামুল হক সাগর এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে শুক্রবার দিবাগত রাতে পুরাতন লঞ্চঘাট এলাকায় বিশেষ অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।গ্রেপ্তারকৃতরা ৫ সেপ্টেম্বর দিবাগত রাতে ঢাকার আশুলিয়া থানাধীন নয়ারহাট বাজারে ও ৩১ আগস্ট দিবাগত রাতে নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার থানার গোপালদী বাজারে স্বর্নের দোকানে ডাকাতির ঘটনায় জড়িত বলে জানিয়েছে পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো- শরিয়তপুর জেলার জাজিরা থানা এলাকার কুন্ডেরচর এলাকার মোহাম্মদ দেওয়ানের ছেলে মোঃ আনোয়ার হোসেন দেওয়ান (৪০), দাইমুদ্দিন খলিফার কান্দি এলাকার মৃত-সিরাজ খলিফার ছেলে মোঃ দেলোয়ার হোসেন খলিফা (৩৬), মাদারীপুর সদর থানার বলাইচর এলাকার মোতালেব খাঁর ছেলে কামাল খাঁ (৩৯), একই গ্রামের মৃত আঃ মান্নান হাওলাদারের ছেলে মোঃ খবির হাওলাদার (৪০),

কালকিনী থানার নতুনচর দৌলতখান এলাকার মোঃ নূরুল ইসলাম হাওলাদারের ছেলে খালেক হাওলাদার (৩৭), বরিশাল জেলার বানারীপাড়া থানার ব্রাহ্মনকাঠী এলাকার মৃত-হারুন গাজীর ছেলে মোঃ আল মিরাজ ওরফে মিন্টু (৩৮),  টাঙ্গাইল জেলার মির্জাপুর থানার বন্দকাউলজানি এলাকার মৃত আব্দুল মালেকের ছেলে আব্দুর রহিম মিয়া (৩১), নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার থানার লক্ষীপুর গ্রামের মৃত-আব্দুল করিমের ছেলে মোঃ কবির হোসেন (৩৮) ও ঝাউকান্দি (নিরাতকান্দা) এলাকার সামসু মিয়ার ছেলে আঃ রহিম মিয়া (৩৯)।

জেলা পুলিশের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, শুক্রবার রাতে নরসিংদীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) সাহেব আলী পাঠান ও জেলা গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল বাসারের নেতৃত্বে নরসিংদী জেলার বিভিন্ন থানা এলাকায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছিল।

নরসিংদী পৌর এলাকার পায়রা চত্বরে অবস্থানকালে গোয়েন্দা পুলিশ জানতে পারে পূর্ব দত্তপাড়া এলাকার পুরাতন লঞ্চঘাট মেঘনা নদীর ঘাটের সিঁড়ি সংলগ্ন বেড়ি বাঁধের উপর একদল ডাকাত ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে ২৪/২৫ জনের ডাকাত দল পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পুলিশকে লক্ষ্য করে ফাঁকা গুলি বর্ষণ করে।

জবাবে জেলা গোয়েন্দা শাখার পুলিশ সদস্যরা ০৪ (চার) রাউন্ড রাবার বুলেট ছোড়ে। এসময়ে পালানোর চেষ্টাকালে ০৯ জন ডাকাতকে আটক করা হয় এবং ১৪/১৫ জন ডাকাত সী-বোট নিয়ে গুলি করতে করতে পালিয়ে যায়।এসময় তাদের দখল থেকে ০২ টি বিদেশী পিস্তল, গুলি, কাটার, দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র, একটি প্রাইভেটকার ও  নগদ ২ লক্ষ ৪৫ হাজার টাকা জব্দ করা হয়।

নরসিংদীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) ইনামুল হক সাগর বলেন, গ্রেপ্তারকৃতরা আন্ত:জেলা ডাকাতদলের সদস্য। পলাতক ডাকাতসহ গ্রেপ্তারকৃতরা অস্ত্রসহ জড়ো হয়ে নরসিংদী থানা এলাকায় স্বর্ণের দোকানে ডাকাতি করার জন্য শলাপরামর্শ করছিল।

এই ডাকাত দল ৫ সেপ্টেম্বর দিবাগত রাতে ঢাকার আশুলিয়া থানাধীন নয়ারহাট বাজারে ও ৩১ আগস্ট দিবাগত রাতে নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার থানার গোপালদী বাজারে স্বর্নের দোকানে ডাকাতির ঘটনায় জড়িত বলে স্বীকার করেছে।

বিডি প্রভাত/জেইচ