ঠাকুরগাঁওয়ে মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণ, থানায় মামলা

ঠাকুরগাঁওয়ে মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণ, থানায় মামলা

আব্দুর রাজ্জাক বাপ্পী, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধিঃ ঠাকুরগাঁও জেলার রুহিয়া থানার ২১ নং ঢোলারহাট ইউনিয়নের মাধবপুর গ্রামের উজ্জ্বল আলীর মেয়ে মাদ্রাসা ছাত্রী বয়স (১২) ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে জানা যায়।

এলাকা বাসী সূত্রে জানা যায়, গত ১৩ জুলাই মঙ্গলবার দুপুর আনুমানিক ২ঃ৩০ মিনিটে শিমুল তলী বাজারে অশেন চন্দ্রর দোকানে নিয়ে ৪ জন মিলে ধর্ষণ করে।

ধর্ষিতার পিতা উজ্জ্বল আলী বলেন, গত পরশু দিন আমার মেয়ে ছাগল আনতে যায় পাশের জমি থেকে কিন্তু সেখান থেকে জোর পূর্বক আমার মেয়েকে শিমুল তলী বাজারের রওশন রায়ের পরিত্যক্ত দোকানে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে এবং স্থানীয় কয়েকজন এই বিষয়টি ধামাচাপা দেওয়ার জন্য আপোষ করছে কিন্তু আমি কিছু জানি না।

থানা সূত্রে জানা যায়, চারজনকে আসামি করে একটা মামলা রুজু করা হয়েছে, রওনা রায়(৩৬), পিতা লেবু রায়। আলমগীর হোসেন (২৫) পিতা আলাউদ্দিন। উত্তম কুমার রায় (২৪) পিতা গৌরো লাল প্রসাদ। অনাথ রায় (৩৬) পিতা শনি রায়, উভয়ের সাং মাধবপুর,২১ নং ঢোলারহাট ইউনিয়ন।

২১ নং ঢোলারহাট ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সিমান্ত কুমার বর্মন নির্মল বলেন, গতকাল রাতে মেয়ের বাবা আমাকে ফোন করে বিষয় টা অবগত করে আমি আজকে তাদের বাড়িতে এসে শুনতে পাই তারা মামলা দায়ের করেছে।

তিনি আরও বলেন, যদি তদন্ত সাপেক্ষে আসামিরা প্রকৃত দোষী সাব্যস্ত হয় তাহলে সঠিক বিচার চাই এবং যদি নিরপরাধ হয় তাহলে মুক্তি পাবে।

রুহিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা চিত্ত রঞ্জন রায় বলেন, আজকে ভুক্তভোগী পরিবার থানায় এসে মামলা দায়ের করে যার মামলা নং-৩, তারিখ-১৫/৭/২১ খ্রিঃ এবং আমরা মামলার এজাহারনামীয় একজন আসামিকে গ্রেফতার করে ঠাকুরগাঁও কোর্টে পাঠানো হয়েছে। বাকি আসামি গ্রেপ্তার করার চেষ্টা চলছে।

বিডি প্রভাত/আরএইচ