টিকার মাধ্যমেই দেশ করোনামুক্ত হবে

টিকার মাধ্যমেই দেশ করোনামুক্ত হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক: স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, করোনার টিকা নিয়ে যারা আগে সমালোচনা করছিলেন তারাই আজ আগে টিকা নিচ্ছেন। এটি সরকারের জনস্বাস্থ্যনীতির একটি বড় সাফল্য।

রবিবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) সকালে নারায়ণগঞ্জে কুমুদিনি ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের অর্থায়নে কুমুদিনি ইন্টারন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব মেডিক্যাল সায়েন্সেস অ্যান্ড ক্যান্সার রিসার্চ-এর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, এখন মানুষের ভ্যাকসিন ভীতি দূর হয়েছে। টিকার ব্যাপারে সাধারণ মানুষের মধ্যে অনেক সচেতনতা এসেছে। প্রতিদিন অন্তত দুই লাখ মানুষ টিকা গ্রহণ করছে। এই টিকার মাধ্যমেই বাংলাদেশ করোনামুক্ত হবে।

তিনি বলেন, করোনার টিকার ব্যাপারে কোনো সন্দেহ পোষণ না করে স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য সবাইকে এই টিকা নিতে হবে। করোনা নিয়ন্ত্রণ ও ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা এতো সহজ ছিল না। করোনার শুরুতে দেশে মাত্র একটি পিসিআর ল্যাব ছিল। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে করোনা শনাক্তে এখন দেশের বিভিন্ন স্থানে ২২০টি ল্যাব স্থাপন করা সম্ভব হয়েছে। বর্তমানে দেশে সংক্রমণের হার ২ দশমিক ৩ শতাংশ।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলে থাকে, যখন কোনো দেশে এই হার তিন শতাংশের নিচে নেমে আসে, তখন সেই দেশ থেকে করোনা ধীরে ধীরে বিদায় হতে থাকে। দেশে মৃত্যুর হার এখন ১ দশমিক ৫। যা বিশ্বে এখন সর্বনিম্ন।

বিডি প্রভাত/জেইচ