টিকটক হৃদয় বাবুর বিরুদ্ধে প্রতিবেদন ৮ আগস্ট

টিকটক হৃদয় বাবুর বিরুদ্ধে প্রতিবেদন ৮ আগস্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীর হাতিরঝিল থানায় এক কিশোরীকে ভারতে পাচারের অভিযোগে মানবপাচার ও প্রতিরোধ আইনে করা মামলায় টিকটক হৃদয় বাবুসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আগামী ৮ আগস্ট দিন ধার্য করেছেন আদালত।

শুক্রবার ঢাকা মহানগর হাকিম দেবব্রত বিশ্বাস মামলার এজাহার গ্রহণ করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য এ দিন ধার্য করেন। এর আগে বৃহস্পতিবার (৮ জুলাই) রাতে ভুক্তভোগী কিশোরীর বাবা হাতিরঝিল থানায় টিকটিক হৃদয়সহ চারজনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন।

অভিযোগে উল্লেখ করেন, অজ্ঞাতনামা কয়েকজন আসামির সহযোগিতায় টিকটক হৃদয় বাবু তার কিশোরী মেয়েকে ভারত পাচার করে। বড় মেয়ে বিজিপ্রেস স্কুলের নবম শ্রেণীর ছাত্রী। করোনা মহামারির কারণে স্কুল বন্ধ থাকায় সে মাঝেমধ্যে তার মা ও ছোট বোনকে নিয়ে হাতিরঝিল এলাকায় ঘুরতে যেতো।

অভিযোগে আরও বলা হয়, সেখানে কয়েকজন ছেলে-মেয়ের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। তাদের মধ্যে মগবাজারের হৃদয় বাবু নামে একটি ছেলে ছিল। সে আরও কয়েকজন ছেলে-মেয়েসহ টিকটক শুটিং করতো। বিষয়টি জানার পর মেয়েকে নিষেধও করা হয়।

এজাহারে আরও বলা হয়, গত ১৭ মার্চ আনুমানিক বিকেল ৫টার দিকে তার মেয়ে ৩০ মিনিট হাতিরঝিলে ঘুরে আসবে বলে বাসা থেকে বের হয়। সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত ফিরে না আসায় নিকটাত্মীয় ও সম্ভাব্য স্থানে খোঁজ করে তারা। তার মোবাইল নম্বরটিও বন্ধ পাওয়া যায়।

অভিযোগে বলা হয়, সম্প্রতি ভারতে পাচারের পালিয়ে আসা এক কিশোরীর নির্যাতনের বর্ণনা তিনি শোনেন। ওই কিশোরীর সঙ্গে পাচার হওয়া কিশোরীর বাবা ও মামলার বাদী যোগাযোগ করেন। একপর্যায়ে পালিয়ে আসা কিশোরী পাচার হওয়া কিশোরীর ছবি দেখে তাকে শনাক্ত করে। এসব মামলার প্রধান আসামি ভারতে পুলিশের হাতে গ্রেফতার হওয়া টিকটক হৃদয় বাবু।

বিডি প্রভাত/জেইচ