জাতিসংঘে যুক্ত হচ্ছে নোয়াখালীর ভাসানচর

জাতিসংঘে যুক্ত হচ্ছে নোয়াখালীর ভাসানচর

নিজস্ব প্রতিবেদক: আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পেতে যাচ্ছে নোয়াখালীর ভাসানচর। রোহিঙ্গা ক্যাম্পে শরণার্থীদের কীভাবে মানবিক সহায়তা দেয়া হবে, সে বিষয়ে বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে শনিবার (৯ অক্টোবর) চুক্তি করতে যাচ্ছে জাতিসংঘ।

চুক্তি অনুযায়ী, কক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে নোয়াখালীর ভাসানচরে স্থানান্তরিত রোহিঙ্গাদের মানবিক সহায়তায় যুক্ত হবে জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআর। সে লক্ষ্যেই দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সাথে এই সমঝোতা স্বাক্ষর হবে। বাংলাদেশের পক্ষে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব এবং জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআরের প্রধান এই সমঝোতা স্মারক সই করার কথা রয়েছে।

সংশ্লিষ্ট এক কর্মকর্তা জানান, রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে যাওয়া নিয়ে বর্তমানে সরকারের সঙ্গে আলোচনা চলছিল জাতিসংঘের। এ আলোচনায় বাংলাদেশের পক্ষে নেতৃত্ব দিয়েছে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়। সেখানে রোহিঙ্গাদের চলাচলের স্বাধীনতা, শিক্ষা, কর্মসংস্থানের সুযোগ, নির্বাচনের সুযোগসহ বিভিন্ন শর্ত দিয়েছে জাতিসংঘ।

সেই সঙ্গে ভাসানচরের মতো কক্সবাজারে রোহিঙ্গা শিবিরেরও আবদার জুড়ে দিয়েছে তারা। কিন্তু এসব শর্তের মধ্যে কিছু শর্ত রয়েছে, যেগুলো আংশিক মেনেছে বাংলাদেশ। আর কিছু শর্ত রয়েছে, যা কোনোভাবেই মানেনি।

উল্লেখ্য, চার বছর আগে মিয়ানমারে নির্যাতনের মুখে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা প্রায় ১১ লাখ রোহিঙ্গা এখন কক্সবাজারের বিভিন্ন শরণার্থী শিবিরগুলোতে অবস্থান করছে। কক্সবাজারের ক্যাম্প থেকে এরইমধ্যে ১ লাখ রোহিঙ্গাকে সরিয়ে নিতে ২ হাজার ৩১২ কোটি টাকা ব্যয় করে ভাসানচর প্রস্তুত করে সরকার। এ পর্যন্ত ছয় দফায় ১৮ হাজার ৫২১ জন রোহিঙ্গাকে ভাসানচরে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। 

বিডি প্রভাত/জেইচ

Spread the love