জঙ্গি হামলায় দণ্ডিত বাংলাদেশি অভিবাসী আকায়েদের বক্তব্য প্রত্যাখ্যান

জঙ্গি হামলায় দণ্ডিত বাংলাদেশি অভিবাসী আকায়েদের বক্তব্য প্রত্যাখ্যান

অনলাইন ডেস্ক: নিউইয়র্কে জঙ্গি হামলায় দণ্ডিত আসামী বাংলাদেশি অভিবাসী আকায়েদ উল্লাহর বক্তব্য প্রত্যাখ্যান করেছেন নিউইয়র্কের আদালত।

২০১৭ সালের ডিসেম্বরে বুকে পাইপবোমা বেঁধে নিউইয়র্ক স্কয়ারের কাছে ব্যস্ততম বাস টার্মিনালে বিস্ফোরণ ঘটান আকায়েদ। বিস্ফোরণে তিনিসহ চারজন আহত হন। পরে তাকে আহত অবস্থায় গ্রেপ্তার করা হয়।  ২০১৮ সালে ম্যানহাটনের আদালতে আকায়েদের বিচার হয়। বিচারে সংঘবদ্ধ জঙ্গিগোষ্ঠীর হয়ে তার কাজ করার বিষয়টি উঠে আসে।

পুলিশের কাছে তার দেওয়া স্বীকারোক্তি ও ফেসবুকে বিদ্বেষমূলক নানা পোস্ট বিচারে উঠে আসে। জুরিবোর্ড আকায়েদকে ৩০ বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত করেন।

আরও পড়ুন: আরও ১ মাস বাড়ল কুয়েতে সাধারণ ক্ষমার মেয়াদ

আকায়েদ দণ্ড চ্যালেঞ্জ করে সম্প্রতি আদালতে দাবি করেন, তিনি ইসলামিক স্টেটের (আইএস) হয়ে জঙ্গি কার্যক্রম চালাননি। প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প মধ্যপ্রাচ্যে বোমা ফেলবেন-এমন কথায় তিনি ক্ষুব্ধ হয়েছিলেন। ট্রাম্পের ওপর বিরক্ত হয়ে তিনি বোমাবাজি করেছেন। আকায়েদ গ্রেপ্তারের পর পুলিশকে দেওয়া স্বীকারোক্তি থেকেও সরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছে।

বিচারক বলেছেন, আইএসের একটি ভিডিও দেখে আকায়েদ অনুপ্রাণিত হয়েছিলেন। আর তাদের নির্দেশ পালন করেছেন নিজে বোমাবাজি করে। তাছাড়া আকায়েদের ফেসবুক পোস্টসহ অন্যান্য গতিবিধি তার দাবিকে সমর্থন করে না। ফলে, তাকে দেওয়া জুরিবোর্ডের দণ্ড ঠিকই আছে।

তবে আকায়েদের এই বক্তব্য গত ৩১ ডিসেম্বর প্রত্যাখ্যান করেছেন বিচারক রিচার্ড সুলিভান। আকায়েদ তার বক্তব্য নতুন করে দিয়ে শাস্তি কমানোর চেষ্টা করেছিলেন। তার পরিবর্তিত বক্তব্য মিথ্যা প্রতীয়মান করে তা প্রত্যাখ্যান করেন বিচারক রিচার্ড সুলিভান। আদালত বলেছেন, জুরিবোর্ডের দেওয়া দণ্ড ঠিক আছে।

বিডি প্রভাত/আরকে

Spread the love