কাদের মির্জার অনুসারী কেচ্ছা রাসেল ও ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেফতার

কাদের মির্জার অনুসারী কেচ্ছা রাসেল ও ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেফতার

আবু সাঈদ শাকিল, নোয়াখালী: নোয়াখালী বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আব্দুল কাদের মির্জার ঘনিষ্ঠ অনুসারী আলোচিত কেচ্ছা রাসেল (৩১) ও তার প্রতিপক্ষের ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম শাহীন চৌধুরীকে (৪৩) গ্রেফতার করেছে নোয়াখালী জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

গ্রেফতার নজরুল ইসলাম শাহীন কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার মুছাপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের অনুসারী হিসেবে পরিচিত।

অপরদিকে, গ্রেফতার শহীদ উল্যাহ ওরফে কেচ্ছা রাসেল উপজেলার বসুরহাট পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডের করালিয়া এলাকার মৃত সফি উল্যার ছেলে। মঙ্গলবার দিবাগত রাতে উপজেলার মুছাপুর ইউনিয়ন থেকে শাহীন চেয়ারম্যানকে কোম্পানীগঞ্জ থানার পুলিশ ও উপজেলার বসুরহাট পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ড থেকে কেচ্ছা রাসেলকে গ্রেফতার করে ডিবি পুলিশ।

এ সময় কেচ্ছা রাসেলের কাছ থেকে একটি এলজি, একটি পাইপগান ও ৩ রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করে পুলিশ। তার বিরুদ্ধে কোম্পানীগঞ্জ থানায় পুলিশ আক্রান্ত ও বিস্ফোরক দ্রব্য আইনে ১৫টি, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ২টি, ডাকাতি দস্যুতা ৩টি, ১টি চুরিসহ মোট ২৩টি মামলা রয়েছে।

একাধিক সূত্র জানায়, কোম্পানীগঞ্জে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে বিবাদমান দ্বন্দ্বে কাদের মির্জার বিপক্ষে অবস্থান নেন ইউপি চেয়ারম্যান শাহীন। দুই পক্ষের মধ্যে বিরোধের জের ধরে বেশ কয়েকটি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে মির্জার অনুসারীরা পাঁচটি মামলায় আসামি করে তাকে।

ইউপি চেয়ারম্যান শাহীন মির্জা বিরোধীদের অন্যতম নেতা। তার গ্রেফতারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করেছে উপজেলা আওয়ামী লীগ এবং বুধবার সকালে মুছাপুর ইউনিয়নের একাধিক স্থানে তার গ্রেফতারের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল করেছে তার অনুসারীরা।

নোয়াখালীর পুলিশ সুপার (এসপি) মো: শহীদুল ইসলাম দুই আসামিকে গ্রেফতারের সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি আরো জানান, গ্রেফতার আসামিদের বুধবার দুপুরে নোয়াখালী চিফ জুড়িশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হবে।

বিডি প্রভাত/জেইচ