আতশবাজি আর ফানুস উড়িয়ে ২০২১ বর্ষবরণ

আতশবাজি আর ফানুস উড়িয়ে ২০২১ বর্ষবরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক: রঙ বেরঙের ফানুস উড়িয়ে, আলোকসজ্জা ও আতশবাজির মধ্য দিয়ে ইংরেজি নববর্ষ ২০২১ বরণ করেছে রাজধানীবাসী।

২০২১ সালকে বরণ উপলক্ষে বছরের প্রথম প্রহরটিতে রাজধানীর আকাশ ছেয়ে যায় ফানুস আর বিভিন্ন রঙের আতশবাজিতে। রাত ১২টার আগ মুহূর্ত থেকেই রাজধানীর প্রায় প্রতিটি বাড়ির ছাদ থেকে ওড়ানো হয় ফানুস, ছড়িয়ে দেওয়া হয় আতশবাজির রঙ।

আর ঘড়ির কাটা ১২ এর ঘর ছুঁতেই তাতে লেগে যায় উচ্ছলতার ঢেউ। লাল-সবুজ-হলুদ-কমলা রঙের আতশবাজিতে মাতোয়ারা হয়ে ওঠে নগরের উৎসব প্রিয় মানুষগুলো। আকাশ ছেয়ে যায় বর্ণিল আলোর আলোকছটায়

করোনাকালে খোলা যায়গায় বর্ষবরণের আয়োজন না করতে পুলিশের নির্দেশনা ছিল। সে মোতাবেক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) টিএসসি, হাতিরঝিলসহ নানা এলাকায় সীমিত আকারে হয়েছে বর্ষবরণের আয়োজন। তবে বর্ষবরণ উপলক্ষে নানা আয়োজনে মুখরিত ছিল রাজধানী পাঁচ তারকা হোটেলগুলো।

অন্যদিনের তুলনায় শীতের তীব্রতাও ছিল কম। পুরাতন বছরকে বিদায় জানাতে শীত কোনো বাধা হয়ে দাঁড়ায়নি এদিন। অনেক বাড়ির ছাদে ছাদে ফানুস, আতশবাজির পাশাপাশি চলে বারবি কিউ পার্টি। রাজধানীর ছাদগুলোতে গান বাজিয়ে আনন্দ করে নানা বয়সী মানুষ।

বৃহস্পতিবার (৩১ ডিসেম্বর) বছরের শেষ দিনের সূর্যাস্ত যেতেই শুরু হয় নতুন বছরের প্রহর গোনা। অবশেষে এলো সেই মাহেন্দ্রক্ষণ। শুক্রবার (১ জানুয়ারি) রাতে ঘড়ির কাঁটা ১২টা ছুঁতেই ঘরের কোণায় ঝুলে থাকা ক্যালেন্ডারের সঙ্গে সঙ্গে যেনো বদলে গেলো জীবনের আশা-আকাঙ্ক্ষাও।

এদিকে বছরের শেষ দিন বিকেল থেকেই রাজধানীজুড়ে পুলিশের কঠোর নিরাপত্তা ও তল্লাশিতে খুশি হতে পারেনি অনেকেই। বর্ষবরণে বিশেষ কোনো আয়োজন না থাকায়, খোলা যায়গায় থার্টি ফার্স্ট পালন করতে না দেয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন নগরবাসী।

নতুন এই বছর অফুরান প্রত্যাশা নিয়ে এসেছে সবার কাছে। এই নতুন হোক উত্তরণের, কালের যাত্রায় এগিয়ে চলার। নতুনের আবাহনে জেগে উঠ‍ুক সমগ্র দেশ, বিশ্ব। ২০২১ সাল মানুষের জীবনে বয়ে আনুক সুখ ও সমৃদ্ধি; এমনটাই এখন প্রত্যাশা সবার।

বিডি প্রভাত/জেইচ

Spread the love