আজ বই উৎসবের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

ভ্যাকসিন নিয়ে মানুষের দ্বিধা কেটে গেছে: প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশজুড়ে বই উৎসব ২০২১ শিক্ষাবর্ষের জন্য বিনামূল্যে পাঠ্যপুস্তক বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

করোনা পরিস্থিতির মধ্যেও যথাসময়ে প্রায় সাড়ে ৪ কোটি শিক্ষার্থীর হাতে বিনা মূল্যে নতুন বই তুলে দিচ্ছে সরকার। প্রথমে শিক্ষামন্ত্রী এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীর হাতে নতুন বই তুলে দেন।

এরপর দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আসা শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দিয়ে উৎসবের সূচনা করেন শেখ হাসিনা। (৩১ ডিসেম্বর) সকালে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী এই বই উৎসবের উদ্বোধন করেন। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন শিক্ষা সচিব সোহরাব হোসাইন।

এবার সারাদেশে ৪ কোটি ২৬ লাখ ১৯ হাজার শিক্ষার্থীর জন্য ৩৫ কোটি ৩১ লাখ ৪৪ হাজার নতুন বই বিতরণ করা হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা ক্ষমতায় এসে শিক্ষার প্রসারে নানা পদক্ষেপ নিয়েছি। শিক্ষা ছাড়া কোনো জাতি সম্মানের সঙ্গে বাঁচতে পারে না। তাই আমাদের লক্ষ্য ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য শিক্ষার সুযোগ নিশ্চিত করা।

নিয়ম অনুযায়ী আগামীকাল সারাদেশে শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দেওয়া হবে। প্রাথমিক পর্যায়ের পাঠ্যপুস্তক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে এবং মাধ্যমিক পর্যায়ের পাঠ্যপুস্তক সাভারের অধরচন্দ্র সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণ থেকে শিক্ষার্থীদের হাতে তুলে দেবে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। আর এর মাধ্যমেই শুরু হবে বই উৎসব।

২০২১ শিক্ষাবর্ষের জন্য প্রাক-প্রাথমিক থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত ৪ কোটি ২৬ লাখ ১৯ হাজার ৮৬৫ জন শিক্ষার্থীর জন্য ৩৫ কোটি ৩১ লাখ ৪৪ হাজার ৫৫৪টি বই ছাপানো হয়েছে। এর মধ্যে প্রাথমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের জন্য ১০ কোটি ৫৪ লাখ ২ হাজার ৩৭৫টি বই এবং মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের জন্য ২৪ কোটি ৭৭ লাখ ৪২ হাজার ১৭৯টি বই বিনা মূল্যে বিতরণ করা হবে।

প্রধানমন্ত্রীর হাতে পঞ্চম এবং অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত এসব পরীক্ষার ফলাফলের অনুলিপি তুলে দেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন। এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল।

এনসিটিবির সহযোগিতায় টানা দশ বছর ধরে বিনামূল্যে পাঠ্যবই প্রদানের কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।

বই ছাপাতে ব্যয় হয়েছে প্রায় ১১০০ কোটি টাকা। এর মধ্যে প্রাথমিকের জন্য ৩৫০ কোটি এবং মাধ্যমিকের জন্য ব্যয় হয়েছে ৭৫০ কোটি টাকা। ২০২০ শিক্ষাবর্ষের জন্য প্রাক-প্রাথমিক স্তরে ৬৬ লাখ ৭৬ হাজার ১০০টি বই, প্রাথমিক স্তরের জন্য ৯ কোটি ৮৪ লাখ ৯৬ হাজার ১৭২টি বই ছাপা হয়েছে।

ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর পাঁচটি ভাষার ৯৭ হাজার ৫৭২টি শিশুর জন্য প্রাক-প্রাথমিক, প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় শ্রেণির ২ লাখ ৩০ হাজার ১৩০টি বই ছাপানো হয়েছে। দেশের ৭৫০ জন দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীর জন্য ছাপা হয়েছে ৯ হাজার ৫০৪টি বই।

বিডি প্রভাত/আরকে

Spread the love