অপমান সহ্য করতে না পেরে নারী শ্রমিকে আত্নহত্যা

অপমান সহ্য করতে না পেরে নারী শ্রমিকে আত্নহত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ সাভারের হেমায়েতপুর হরিণধরা এলাকা থেকে এক নারী শ্রমিকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বুধবার (১০ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে এলাকার জাহানারা বেগমের ভাড়াবাড়ির কক্ষ থেকে ফ্যানের সঙ্গে গলায় ওড়না পেঁচানো অবস্থায় নিহতের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। ঘটনার পর থেকে নিহতের স্বামী পলাতক রয়েছেন।

নিহত খুশী খাতুন (২৮) সিরাজগঞ্জের কাজিপুর থানার পার খুকশিয়া গ্রামের বেলাল শেখের মেয়ে। খুশী স্বামী রুবেলের সঙ্গে হরিণধরা এলাকায় ভাড়া বাসায় থেকে পার্শ্ববর্তী স্টারলিং কারখানায় সুইং অপারেটর হিসেবে কাজ করতেন। আর রুবেল অটোরিকশা চালাতেন।

নিহতের বোন সেলিনা বেগম বলেন, আমার বোনের সঙ্গে অন্য ফ্যাক্টরিতে চাকরি করা এক ছেলের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে মনোমালিন্য হয়। এক পর্যায়ে অপমান সহ্য করতে না পেরে খুশী গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেন।

স্থানীয় ৪ নং ওয়ার্ড মেম্বার কাজল হোসেন বলেন, সকালে ঘরের দরজা বন্ধ করে দিয়ে খুশী সিলিং ফ্যানের সঙ্গে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। বিষয়টি পুলিশকে জানানো হলে তারা এসে মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

সাভার মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) অপূর্ব দাস বলেন, নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।প্রাথমিকভাবে নিহতের স্বজনদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, প্রেম সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে স্বামীর সঙ্গে মনোমালিন্যের জের এই আত্মহত্যার ঘটনা ঘটতে পারে।

বিডি প্রভাত/আরএইচ